শনিবার, ১০ এপ্রিল ২০২১, ০৮:২৫ অপরাহ্ন

জাতির পিতার স্বপ্নের সোনার বাংলার দ্বারপ্রান্তে দেশ: নৌ প্রতিমন্ত্রী

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে বাংলাদেশ এখন জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের স্বপ্নের সোনার বাংলা বিনির্মাণের দ্বারপ্রান্তে বলে জানিয়েছেন নৌ পরিবহন প্রতিমন্ত্রী খালিদ মাহমুদ চৌধুরী।

বৃহস্পতিবার দিনাজপুরে বিরল সরকারি পাইলট মডেল উচ্চ বিদ্যালয়ের মাঠে উপজেলা ক্রীড়া সংস্থা ও উপজেলা আওয়ামী লীগের উদ্যোগে বঙ্গবন্ধু গোল্ডকাপ ফুটবল টুর্নামেন্ট-২০২১ এর উদ্বোধনে এ কথা বলেন নৌ পরিবহন প্রতিমন্ত্রী।

খালিদ মাহমুদ চৌধুরী বলেন, সুবর্ণজয়ন্তীতে বাংলাদেশ একটি আত্মনির্ভরশীল দেশ হিসাবে আত্মপ্রকাশ করেছে শেখ হাসিনার নেতৃত্বে। আমরা সৌভাগ্যবান। আমরা জাতির জনকের জন্ম শতবার্ষিকী ও স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তী উদ্‌যাপন করব। আমাদের উদ্‌যাপন করার মতো সময় এসেছে। এ উদ্‌যাপনের মাধ্যমে মহান নেতা বঙ্গবন্ধু ও ৩০ লাখ শহীদের প্রতি শ্রদ্ধা জানাব। আমরা বলতে পারব, পিতা মুজিব তুমি যে, সোনার বাংলার স্বপ্ন দেখেছিলে, সোনার বাংলার কর্মসূচি নিয়েছিলে, আজকে তোমারই রক্তের উত্তরসূরি শেখ হাসিনার নেতৃত্বে সোনার বাংলার দ্বারপ্রান্তে চলে গেছে।

তিনি বলেন, জাতির জনকের জন্ম শতবার্ষিকী বাঙালি তথা বাংলাদেশের জন্য দ্বিতীয়বার আসবে না। আমরা যারা মুক্তিযুদ্ধ প্রজন্ম আছি, মুক্তিযুদ্ধে অংশগ্রহণ করার সুযোগ পায়নি। মুক্তিযুদ্ধের অবদান, ৩০ লাখ শহীদের অবদান, বীর মুক্তিযোদ্ধাদের রণাঙ্গনের ভূমিকা আমাদের জীবনের পাথেয়। এগুলো নিয়ে আমরা আমাদের ব্যক্তি, সমাজ ও রাষ্ট্র জীবন পরিচালনা করে থাকি। সেই জায়গায় থেকে আমরা হয়তো মুক্তিযুদ্ধ পাইনি, তবে আমরা যে মুক্তিযুদ্ধ, বঙ্গবন্ধুর আদর্শকে লালন করেছি, সেই জায়গা থেকে আমরা অত্যন্ত সৌভাগ্যবান। সমগ্র বিশ্বের বিস্ময় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। যার নেতৃত্বে একটি দারিদ্র্যপীড়িত, স্বল্পোন্নত দেশ উন্নয়নশীল দেশের সুপারিশ পেয়েছে। এটা আমাদের মহান নেতার জন্ম শতবার্ষিকীতে বিরাট অর্জন।

প্রতিমন্ত্রী বলেন, আমরা যে মুক্তিযুদ্ধের শহীদদের কাছে প্রতিশ্রুতিবদ্ধ ছিলাম একটি সুখী সমৃদ্ধিশালী বাংলাদেশ গড়ব। আমরা মুক্তিযুদ্ধের শহীদদের বলব, তোমরা এই দেশের জন্য জীবন দিয়েছ। আমরা তোমাদের এই দেশকে সুখী-সমৃদ্ধ দেশে পরিণত করেছি শেখ হাসিনার নেতৃত্বে।

খালিদ মাহমুদ চৌধুরী বলেন, জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান একজন রাজনৈতিক ব্যক্তিত্ব নন, এই মহান নেতার শৈশব-কৈশোরসহ পুরো জীবনই যদি আমরা দেখি তিনি ক্রীড়াঙ্গনের একজন খেলোয়াড় ছিলেন, ক্রীড়ামোদী ছিলেন। তিনি সংস্কৃতিপ্রেমী একজন মানুষ ছিলেন, তিনি জনবান্ধব ও জনগণের অধিকার আদায়ের জন্য নিজেকে উৎসর্গ করেছিলেন। মানুষের অধিকার প্রতিষ্ঠা করতে গিয়ে অনেক নির্যাতন সহ্য করতে হয়েছে। এভাবেই তিনি মানুষের মণিকোঠায় অবস্থান করেছেন।তিনি দেশ ও এই ভূখণ্ডের বন্ধু হিসাবে মানুষ তাকে গ্রহণ করেছেন। তিনি বঙ্গবন্ধু থেকে জাতির পিতা হয়েছেন। কারণ তারই নেতৃত্বে এই স্বাধীন সার্বভৌমত্ব বাংলাদেশ।

উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা জিনাত রহমানের সভাপতিত্বে আরো উপস্থিত ছিলেন উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি ও পৌর মেয়র সবুজার সিদ্দিক সাগর, উপজেলা চেয়ারম্যান একেএম মোস্তাফিজুর রহমান বাবু, উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক রমাকান্ত রায়।

খেলায় বিরল শংকরপুর মিতালী সংঘকে ২-০ গোলে কাহারোল উপজেলার নশীপুর সংঘ পরাজিত করেন। খেলা সঞ্চালনা করেন উপজেলা ক্রীড়া সংস্থার সাধারণ সম্পাদক আব্দুল মালেক।

সংবাদটি শেয়ার করুন

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, অডিও, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।